সংস্করণ: ২.০১

স্বত্ত্ব ২০১৪ - ২০১৭ কালার টকিঙ লিমিটেড

writing-checklist.jpg

কিছু পরামর্শ লিখুন প্রাসঙ্গিক ও প্রয়োজনীয় বিষয়ে

শুরু হবার পর এই কয়েকদিনে আমরা অনেক অনেক লেখা পেয়েছি। আমরা কৃতজ্ঞ আপনাদের সহযোগিতার জন্য। আমাদের অনভিজ্ঞতা অনেকক্ষেত্রে পুরো কর্মপদ্ধতিকে কিছুটা ধীর বা দীর্ঘায়িত করেছে। বহু লেখা এখনো অপেক্ষমান আছে, অনেক লেখককে  বলতে হচ্ছে যে আমরা তাদের লেখা প্রকাশ করতে পারছি না।

আমাদের সম্পাদকীয় নীতি অনুযায়ী আমরা প্রতিটি লেখা অত্যন্ত যত্ন সহকারে পড়ি। এই সম্পাদনার দলে থাকে একাধিক ব্যক্তি যাদের কাজ হলো আপনার প্রেরিত লেখার সঠিক মূল্যায়নের সর্বোচ্চ চেষ্টা করা। এই মূল্যায়নে যে বিষয়গুলো আমরা মাথায় রাখি, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার তাগিদে তা আপনাদের কাছে প্রকাশ করতে চাই।

বিষয় নির্বাচন:
মূল্যায়নের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ দিক হলো আপনার প্রেরিত লেখার বিষয়বস্তু। আমরা সবাইকে অনুরোধ করবো আপনার পরবর্তী লেখার বিষয় নির্ধারণে নিন্মোক্ত কথাগুলো মাথায় রাখবেন।
  • আপনার লেখার বিষয়বস্তু কোনো জীবিত বা মৃত ব্যক্তিকে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য নয়। এর মাধ্যমে কোনো ক্ষুদ্র বা বৃহৎ গোষ্ঠী অথবা বিশ্বাসকে আঘাত করা হচ্ছে না।
  • আপনার লেখার বিষয়বস্তু বাংলাদেশের প্রচলিত আইন পরিপন্থী কিছু নয়। এই ক্ষেত্রে মনে রাখবেন আপনার লেখার বিষয়বস্তুর দায়বদ্ধতা সবসময় আপনার উপরই বর্তানো হবে।
  • আপনার দৈনন্দিন জীবন, অভিজ্ঞতালব্ধ কোনো চিন্তা বা কর্মপদ্ধতি, ব্যক্তিগত বা সমষ্টিগত সাফল্য বা সম্ভাবনা, দার্শনিক ভাবনা বা দিকনির্দেশনা, ভ্রমন কাহিনী, খাবার বা পণ্য ব্যবহারের অভিজ্ঞতা - এসব আমাদের পছন্দের বিষয়। তবে আপনার উপস্থাপনায় পরিচ্ছন্নতা ও শালীনতা অপরিহার্য।
  • আঞ্চলিক খবর, ঐতিহাসিক অথবা গুরুত্বপূর্ণ নিদর্শনের বর্ণনা, রীতিনীতি অথবা রান্নার প্রণালী - এসব বিষয়ও অন্তর্ভুক্ত হতে পারে আপনার লেখায়।
শব্দসীমা:
খুব দীর্ঘ আবার খুব সংক্ষিপ্ত দুই প্রকারের প্রতিবেদনের ব্যাপারেই আমরা একটু কম আগ্রহী। অনলাইনে পড়া এবং বই অথবা পত্রিকায় পড়া - এই দুই অভিজ্ঞতার মধ্যে যথেষ্ট তারতম্য আছে। আমাদের এখানে লেখার সময় আপনি নিন্মোক্ত বিষয়গুলোর দিকে নজর রাখবেন।
  • আপনার লেখাটি সর্বনিম্ন এক পৃষ্ঠা থেকে সর্বোচ্চ দুই পৃষ্ঠা হওয়া উচিত। অন্য হিসেবে ৮ থেকে ১০ প্যারার মধ্যে হওয়া উচিত।
  • প্রতিটি প্যারায় লাইন থাকা উচিত ৫ থেকে ৭ টি।
  • যদি সত্যিই আপনার লেখার বিষয় অনেক দীর্ঘ হয়, সেক্ষেত্রে আমাদের পরামর্শ থাকবে ছোটো ছোটো খন্ডে বা পর্বে তা ভাগ করে ফেলা।
মৌলিকতা:
আমরা ধরে নিতে চাই আমাদের কাছে প্রেরিত সব লেখার স্বত্ত্বাধিকারী আপনি নিজেই। যার অর্থ হলো আপনি এই লেখা অন্যকোনো বই, পত্রিকা অথবা ওয়েবসাইট থেকে নকল করেননি। আমরা ঐসব লেখা প্রকাশে যথেষ্ট সময় নেই যেখানে আমাদের সন্দেহ হয় এই লেখাটি হয়ত নকল হতে পারে। এই ধরনের কোনো বিষয় প্রমাণিত হলে ওই লেখকের সকল উপার্জনসহ সদস্যপদ বাতিল করা হবে এবং এই বিষয়ে কোনো প্রকার আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ দেয়া হবে না।

বাংলা বানান:
যারা বাংলা বানানের ব্যাপারে অমনোযোগী তাদের লেখা এখানে প্রকাশিত হবার সম্ভাবনা কম। আমাদের সম্পাদনা পরিষদ ছোটো খাটো অনিচ্ছাকৃত ভুল সংশোধনে সর্বদা প্রস্তুত থাকে। কিন্তু যারা অনেক বেশি বানান ভুল করেন তাদের কাছে অনুরোধ থাকবে শুদ্ধ বানানে বাংলা লেখার কিছুটা চর্চা করে তারপর আমাদের এখানে লেখা জমা দিবেন।

সামনের দিনগুলোতে এখানে আমরা আরো কিছু বিষয় সংযোজন করব যা আপনাদের সাহায্য করবে আমাদের কাছে আপনার লেখার গ্রহণযোগ্যতা বৃদ্ধিতে।
এখানে প্রকাশিত প্রতিটি লেখার স্বত্ত্ব ও দায় লেখক কর্তৃক সংরক্ষিত। আমাদের সম্পাদনা পরিষদ প্রতিনিয়ত চেষ্টা করে এখানে যেন নির্ভুল, মৌলিক এবং গ্রহণযোগ্য বিষয়াদি প্রকাশিত হয়। তারপরও সার্বিক চর্চার উন্নয়নে আপনাদের সহযোগীতা একান্ত কাম্য। যদি কোনো নকল লেখা দেখে থাকেন অথবা কোনো বিষয় আপনার কাছে অগ্রহণযোগ্য মনে হয়ে থাকে, অনুগ্রহ করে আমাদের কাছে বিস্তারিত লিখুন।

article, spelling, writer, write, guideline, originality