সংস্করণ: ২.০১

স্বত্ত্ব ২০১৪ - ২০১৭ কালার টকিঙ লিমিটেড

dream-catcher-aircraft.jpg

একের ভিতর তিন এক গুচ্ছ মজার খবর

এরই মধ্যে ঘটে গেল এক অপ্রত্যাশিত ঘটনা! একটি চিতাবাঘ ঘরের দরজা খুলে ঢুকে পড়ল সেই ঘরে। এটা কী বিশ্বাসযোগ্য? তবে ঘটনাটি কিন্তু সত্য!

চিতাবাঘের টিভি দর্শন
দিল্লীর বাসিন্দা বিমলা দেবী তার ছেলেকে নিয়ে নিজের ঘরেই টিভি দেখছিলেন। এরই মধ্যে ঘটে গেল এক অপ্রত্যাশিত ঘটনা! একটি চিতাবাঘ ঘরের দরজা খুলে ঢুকে পড়ল সেই ঘরে। এটা কী বিশ্বাসযোগ্য? তবে ঘটনাটি কিন্তু সত্য!

ভাগ্যিস! ঘরে আরেকটি দরজা ছিল। তাই প্রাণ বাঁচাতে কৌশলে সেই দরজা দিয়ে ঘর থেকে বেড়িয়ে তারা বাইরে থেকে দরজা বন্ধ করে দিয়ে তৎক্ষনাৎ খবরটি জানিয়ে দেন থানায়। থানা থেকে পুলিশ আসার সময় বন বিভাগের লোকজনকে সাথে করে নিয়ে এসে দেখেন, সত্যি একটি চিতা বাঘ দিব্যি বিছানায় আরামে শুয়ে শুয়ে টিভি দেখছে!

ব্যাপারটা ভয়ঙ্কর এবং চমকপ্রদ! আজগুবি এমন ঘটনার কথা কেউ কোন দিন শোনা তো দুরের কথা, কল্পনাও করেনি! তারপর যা হবার তাই হলো। বন বিভাগের লোকজন চেতনা নাশক গুলি ছুঁড়ে বাঘটিকে অচেতন করে চিড়িয়াখানায় নিয়ে গেল।  

সুপার প্লেন সমাচার
আগামী ২০১৬ সালেই রানওয়ে স্পর্শ করবে অসাধারণ এক সুপার প্লেন, যার পোশাকী নাম স্ট্র্যাটোলঞ্চ কেরিয়ার এয়ারক্রাফ্ট। যদিও এর নাম প্রথম দেওযা হয়েছিল ড্রিম ক্যাচার। ২০১১ সালেই মাইক্রোসফটের কো-ফাউন্ডার পল অ্যালেন, ইলোন মাস্ক এবং বার্ট রুটানকে সঙ্গে নিয়ে এই বিমান তৈরীর পরিকল্পনা করেন, যা বর্তমানে নির্মাণাধীন আছে।

প্রস্তুতকারীদের দাবি, আগামী ২০১৬ সালেই এই সুপার প্লেনটির নির্মাণ কাজ শেষ হবে এবং রানওয়ে স্পর্শ করবে, এই প্লেন মহাকাশচারীদের ভূপৃষ্ঠ থেকে ২০০০ কিলোমিটার পর্যন্ত উড়ে ভূপৃষ্ঠের বাইরে নিয়ে যেতে পারবে এবং রানওয়েতে ফেরৎ আসতে পারবে।

স্ট্র্যাটোলঞ্চ কেরিয়ার এয়ারক্রাফ্টের একেকটি ডানা ৩৮৫ ফুট লম্বা। ছ'টি সিক্স ৭৪৭ ক্লাস ইঞ্জিনে সমৃদ্ধ এই বিমানটির ওজন ১ লক্ষ ২০ হাজার পাউন্ড।

মাইক্রোসফটের সহ-কর্ণধার পল অ্যালেন ও বার্ট রুটানের মস্তিষ্কপ্রসূত এই বিমানটি নিজের শ্রেণীর সর্বশ্রেষ্ঠ বিমান হতে চলেছে।

বিস্ময় বালিকা নিকোলে বার
মাত্র বার বছর বয়সের সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী নিকোলে বার খুব অল্প বয়স থেকেই কঠিন কঠিন গাণিতিক সমাধান এক নিমেষেই করে ফেলতে পারে, নিকোলের শিক্ষকরা এমনই বলেছেন । আর তার মায়ের কথা হলো, সে মোটেও সময় নষ্ট না করে পড়াশোনার জন্য যথেষ্ঠ পরিশ্রম করে । স্কুল থেকে ফিরেই হোমওয়ার্ক করতে বসে যায় ৷ খুব ছোটবেলা থেকেই বই ও ম্যাগাজিনগুলির ভুল ধরে ফেলা তার স্বভাব ৷ সে পড়াশোনার পাশাপাশি গান ও নাটক করতেও  ভালোবাসে ৷

গত সপ্তাহে পাওয়া আই কিউ টেস্টের ফল দেখে সে নিজেও বিস্মিত হয়ে যায়৷ কারণ হকিং, আইনস্টাইন, বিল গেটস এর প্রত্যেকের আই কিউ যেখানে ১৬০ বলেই ধরা হয়, সেখানে এ বিস্ময় বালিকা নিকোলে বার’র মেনসা আই কিউ (ইন্টেলিজেন্ট কোশেন্ট) টেস্টে ১৬২ পয়েন্ট পাওয়ার পরই ব্রিটেনের এই নাবালিকাকে ঘিরে শুরু হয়েছে তুমুল জল্পনা৷ ভবিষ্যতে এই বালিকা তাঁদের হার মানাবে বলে মনে করা হচ্ছে।


এখানে প্রকাশিত প্রতিটি লেখার স্বত্ত্ব ও দায় লেখক কর্তৃক সংরক্ষিত। আমাদের সম্পাদনা পরিষদ প্রতিনিয়ত চেষ্টা করে এখানে যেন নির্ভুল, মৌলিক এবং গ্রহণযোগ্য বিষয়াদি প্রকাশিত হয়। তারপরও সার্বিক চর্চার উন্নয়নে আপনাদের সহযোগীতা একান্ত কাম্য। যদি কোনো নকল লেখা দেখে থাকেন অথবা কোনো বিষয় আপনার কাছে অগ্রহণযোগ্য মনে হয়ে থাকে, অনুগ্রহ করে আমাদের কাছে বিস্তারিত লিখুন।

আগামী, মহাকাশ, গল্প, প্রতিভা, সভ্যতা, চিতাবাঘ, অদ্ভুত, ঘটনা, চমৎকার